X

Fact Check: ১ ডিসেম্বর থেকে দেশে লকডাউনের দাবিটি কেবলমাত্র গুজব, এবিপি নিউজের নামে ভাইরাল হওয়া ট্যুইটটি ভুয়ো

  • By Vishvas News
  • Updated: December 9, 2020


নিউ দিল্লী (বিশ্বাস নিউজ) দিল্লির নির্বাচিত অঞ্চলগুলিতে সীমিত মাত্রার নিষেধাজ্ঞার খবরের মধ্যে নিউজ চ্যানেল ABP এর একটি ট্যুইট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে, যাতে দেশে আরো একবার লকডাউন জারি করার দাবি করা হচ্ছে। 

বিশ্বাস নিউজের তদন্তে এই দাবী ভুল বলে প্রমাণিত হয়েছে।নিউজ চ্যানেল ABP এর তরফে দেশে আরো একবার লকডাউন জারি হওয়ার দাবি সহ ভাইরাল হওয়া ট্যুইটটি ভুয়ো। নিউজ চ্যানেল এ জাতীয় কোনও ট্যুইট করেনি, বা দেশে পুনরায় লকডাউনের কোনও ঘোষণাও করা হয়নি।

ভাইরাল পোস্টে কি আছে?

অনেক ইউজার বিশ্বাস নিউজের ফ্যাক্ট চেকিং হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটবোটে (+91 95992 99372) এই ভাইরাল ট্যুইটটি পাঠিয়েছেন এবং এর সত্যতা জানানোর জন্য অনুরোধ করেছেন।

তদন্ত

ভাইরাল হওয়া ট্যুইটে দাবী করা হচ্ছে যে দেশে এক ডিসেম্বর থেকে আরো একবার লকডাইন জারি করা হবে এবং এর কারণ করোনার ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। ভালো করে দেখার পরে যে ট্যুইটটি ভাইরাল হচ্ছে তাতে অনেক বানান ভুল নজরে এসেছে, যা এর বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে সন্দেহ তৈরি করে।

ABP নিউজের ভেরিফায়েড ট্যুইটার হ্যান্ডেলে আমরা সারা লকডাউন জারি করা সম্বন্ধিত কোন ট্যুইট পাই নি। ABP নিউজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে আমরা এই খবরটি পেয়েছি যে, দিল্লিতে 200 জন লোকের পরিবর্তে 50 জন লোক বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য কেজরিওয়ালের প্রস্তাবটি উপ-রাজ্যপালের অনুমোদন পেয়েছে।

ভাইরাল হওয়া ট্যুইটটি নিয়ে আমরা ABP নিউজের সাথে যোগযোগ করি। এবিপি নিউজের মূখপাত্র ইমেলের মাধ্যমে আমাদের জানিয়েছেন যে, ‘দেশে আবার লকডাউন জারি করার দাবীর ট্যুইটের স্ক্রিণশট নকল এবং ভুয়ো। যা আমাদের ব্র্যান্ড নামের সহায়তায় সোশ্যাল মিডিয়ায় জাল দাবি ছড়িয়ে দিতে ব্যবহৃত হচ্ছে। আমাদের ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে এ জাতীয় কোনও তথ্য দেওয়া হয়নি।

দেশে আবার লকডাউন জারি সম্পর্কিত তথ্য একটা বড় খবর হত, তবে নিউজ সার্চে তেমন কোনও খবর পাওয়া যায়নি। তবে, আমরা দিল্লিতে লকডাউনের পরিবর্তে হটস্পট অঞ্চলে স্থানীয় নিষেধাজ্ঞার কথা উল্লেখ করে এরকম অনেক খবর পেয়েছি। দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন পরিষ্কার করেছেন যে দিল্লিতে আর কোনও লকডাউন হবে না। এখানে এর কোন প্রয়োজনীয়তা নেই।

সার্চে আমরা দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়ার বক্তব্যও পেয়েছি। এতে তিনি বলেছিলেন, “দিল্লি সরকারের লকডাউন চাপিয়ে দেওয়ার কোনও ইচ্ছা নেই। লকডাউন করোনার সাথে লড়াই করার উপায় নয়। মেডিকেল ম্যানেজমেন্টই এটির লড়াই করার একমাত্র উপায়। বর্তমানে দিল্লীতে 26000 মানুষ হোম আইসোলেশনে আছেন। আমাদের কাছে 16000 বেড রয়েছে যার মধ্যে 50% বেড শূন্য রয়েছে।’

নিউজ রিপোর্ট অনুযায়ী, ‘দিল্লিতে করোনার ভাইরাস সংক্রমণের ক্রমবর্ধমান ঘটনার মধ্যে মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় সরকারের  কাছে বাজার এলাকায় লকডাউন আরোপের করার অধিকার চেয়েছেন, যা কিনা কোভিড -১৯-এর ‘হটস্পট’ হয়ে উঠতে চলেছে। তিনি বলেছিলেন যে দীপাবলি উৎসব চলাকালীন দেখা গিয়েছিল যে অনেক লোক মাস্ক পরেন নি এবং তারা যথাযথ দূরত্ব বিধি অনুসরণ করেন নি, যার কারণে করোনার ভাইরাস খুব বেশি ছড়িয়ে পড়েছে। এর আগের দিন, দিল্লি সরকার তার প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ‘লোকাল লকডাউন’ শব্দটি ব্যবহার করেছিল, তবে পরে এটি সংশোধন করে ‘বন্ধ’ করে দেওয়া হয়েছিল।

উল্লেখ্য যে আনলক-6 এর আওতায় কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে বলেছিল যে অনুমোদন ছাড়া কনটেনমেন্ট জোনের বাইরে লকডাউন জারি করা যাবে না। এমন পরিস্থিতিতে দেশব্যাপী লকডাউন জারি করার প্রস্তাবটি একটি বড় খবর হত, তবে আমরা নিউজ সার্চে এমন কোনও সংবাদ পাইনি, যাতে আবার দেশব্যাপী লকডাউনের উল্লেখ করা হয়েছে।


निष्कर्ष: উপসংহার: দেশে আবারও লকডাউন দেওয়ার দাবিতে ভাইরাল হওয়া ট্যুইটটি নকল। এই দাবিটি নিউজ চ্যানেল ABP এর নামে ট্যুইট এডিটিংয়ের সহায়তায় প্রস্তুত করা হয়েছে, যার কোনও সত্যতা নেই।

Know the truth! If you have any doubts about any information or a rumor, do let us know!

Knowing the truth is your right. If you feel any information is doubtful and it can impact the society or nation, send it to us by any of the sources mentioned below.

ট্যাগ

সম্পর্কিত আর্টিকেলস

Post saved! You can read it later