X

Fact Check: PFI-এর নামে বিভ্রান্তিকর দাবি নিয়ে কলকাতার ব্যবসায়ীর ওপর ইডির অভিযানের ভিডিও ভাইরাল

  • By Vishvas News
  • Updated: October 31, 2022

নিউ দিল্লী (বিশ্বাস নিউজ)। পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়া (পিএফআই) ব্যান হওয়ার পরে, সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে যাতে প্রচুর পরিমাণে টাকার বান্ডিল দেখা যায়। দাবি করা হচ্ছে এই ভিডিওটি কেরালার পিএফআই অফিস থেকে বাজেয়াপ্ত করা 2000 কোটি টাকার একটি মামলার সঙ্গে সম্পর্কিত।

বিশ্বাস নিউজের তদন্তে এই দাবি মিথ্যা বলে প্রমাণিত হয়েছে। ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি PFI বা কোথাও থেকে এর বিরুদ্ধে নেওয়া পদক্ষেপের সাথে সম্পর্কিত নয়। প্রকৃতপক্ষে, ভিডিওটি কলকাতার এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে ইডির রেডের সাথে সম্পর্কিত, যেখানে প্রায় 17 কোটি টাকা নগদ উদ্ধার করা হয়েছিল। একই ভিডিও পিএফআইকে যুক্ত করে মিথ্যা দাবি সহ ভাইরাল করা হচ্ছে।

কি ভাইরাল করা হচ্ছে?

ভাইরাল ভিডিওটি শেয়ার করে ফেসবুক ইউজার ‘‘Umesh Khandelwal’ লিখেছেন, “কেরালায় সন্ত্রাসবাদী সংগঠন PFI-এর অফিস থেকে 2000 কোটি টাকা পাওয়া গেছে। 👆👆👆

ভারতে সন্ত্রাস ছড়ানো এবং হিন্দুদের গণহত্যার জন্য এই অর্থ সংগ্রহ করা হয়েছিল।

দেশে মোদি সরকার না থাকলে আমরা তো জানতেই পারতাম না। কারণ বিজেপি ছাড়া বাকি অন্য সব পার্টি এই সন্ত্রাসী সংগঠনকে সমর্থন করে। এখন বুঝেছেন কংগ্রেস দলই সবচেয়ে বেশি, 🌹 চোখ খুলুন হিন্দুরা।”

আরও বেশ কিছু ইউজার এই ভিডিওটি একই এবং অনুরূপ দাবি সহ শেয়ার করেছেন৷

তদন্ত

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে কিছু লোককে টাকা গণনার মেশিন দিয়ে নোটের বান্ডিল গুনতে দেখা যায়। ভাইরাল ভিডিওটির কী-ফ্রেমকে গুগল রিভার্স ইমেজে সার্চ করার পর যে ভিডিওটি 11 সেপ্টেম্বর, 2022-এ ‘ANI Digital’ -এর অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকে টুইট করা হয়েছে, তার সাথে ভাইরাল ভিডিওর মিল আছে।

টুইটের সাথে দেওয়া তথ্য অনুসারে, এই ভিডিওটি কলকাতার একজন ব্যবসায়ীর বাড়িতে ইডির রেডের, যেখানে 17 কোটি টাকা উদ্ধার করা হয়েছে এবং উদ্ধার হওয়া নোটগুলি গণনা করতে 16 ঘন্টা এবং 8টি মেশিন লেগেছে।

এটি আরও অনেক নিউজ রিপোটিং দ্বারা নিশ্চিত করা হয়েছে। 10 সেপ্টেম্বর, 2022-এ, ইটি এর রিপোর্ট অনুযায়ী মোবাইল গেমিং অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কিত তদন্তের ক্ষেত্রে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) কলকাতার একজন ব্যবসায়ীর বাড়িতে অভিযান চালিয়েছিল, যাতে মোট 17 কোটি টাকা উদ্ধার করা হয়েছিল।

ED প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং অ্যাক্ট (PMLA) 2002-এর অধীনে কলকাতার মোট ছয়টি স্থানে অভিযান চালিয়েছিল। ভাইরাল ভিডিওটির বিষয়ে আমরা আমাদের সহকর্মী দৈনিক জাগরণের কলকাতা ব্যুরো চিফ জে কে বাজপেয়ীর সাথে যোগাযোগ করেছি। তিনি নিশ্চিত করেছেন যে এই ভিডিওটি গেমিং অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কিত তদন্তের ক্ষেত্রে কলকাতার ব্যবসায়ীর বাড়িতে ইডির অভিযানের সাথে সম্পর্কিত।

উল্লেখ্য, 28 সেপ্টেম্বর 2022-এ, কেন্দ্রীয় সরকার পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়া (PFI) কে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছিল।

আনলফুল অ্যাক্টিভিটিস (প্রিভেন্সন অ্যাক্ট), 1967 এর অধীনে, PFI এর সাথে তার অনুমোদিত সংস্থাগুলি ‘রিহ্যাব ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন’ (RIF), ‘ক্যাম্পাস ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়া’ (CF), ‘অল ইন্ডিয়া ইমাম কাউন্সিল’ (AIIC), ‘ন্যাশনাল কনফেডারেশন অফ হিউম্যান’ অধিকার সংস্থা (NCHRO), ‘ন্যাশনাল উইমেনস ফ্রন্ট’, ‘জুনিয়র ফ্রন্ট’, ‘এমপাওয়ার ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন’ এবং ‘রিহ্যাব ফাউন্ডেশন (কেরল)’ কে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এর আগে এই ভিডিওটি আরও একটি অসমর্থিত এবং মিথ্যা দাবি সহ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে, যার ফ্যাক্ট চেক রিপোর্টটি এখানে পড়তে পারেন।

যে ইউজার একটি বিভ্রান্তিকর দাবি সহ ভাইরাল ভিডিওটি শেয়ার করেছেন তার প্রোফাইলটি একটি নির্দিষ্ট মতাদর্শ দ্বারা অনুপ্রাণিত।

উপসংহার: কলকাতার এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে ইডি অভিযানের ভিডিও এবং গেমিং অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কিত তদন্তের ফলে হওয়া অর্থ উদ্ধারের ভিডিওটি নিষিদ্ধ সংগঠন পিএফআই-এর কেরালা অফিস থেকে উদ্ধার করা অর্থের এই বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে ভিডিওটি শেয়ার করা হচ্ছে।

  • Claim Review : কেরালায় সন্ত্রাসী সংগঠন পিএফআই-এর অফিস থেকে 2000 কোটি টাকা পাওয়া গেছে।
  • Claimed By : FB User-Umesh Khandelwal
  • Fact Check : False
False
Symbols that define nature of fake news
  • True
  • Misleading
  • False

Know the truth! If you have any doubts about any information or a rumor, do let us know!

Knowing the truth is your right. If you feel any information is doubtful and it can impact the society or nation, send it to us by any of the sources mentioned below.

ট্যাগ

Post your suggestion

No more pages to load

সম্পর্কিত আর্টিকেলস

Next pageNext pageNext page

Post saved! You can read it later